পৃষ্ঠাসমূহ / Pages

দূর্গা পূজা ২০১০

শরতের নির্মল  আকাশে পুঞ্জ পুঞ্জ মেঘের খেলা।
ধরনীর বুকে শিউলীর সুবাস আর কাশের মেলা।
এমনি করেই প্রতি বছর পুজোর  খবর আসে ।
এই বারতায়  মোদের চিত্ত আনন্দেতে ভাসে।

অবশেষে মায়ের আগমনে র প্রতীক্ষার হয় শেষ
আয়োজনের নেইকো শেষ , কেনা কাটা অশেষ।
উৎসবের এই আলোকের ঝরনা ধারায় এসে ,
আমরা সবাই যাই আনন্দেতে ভেসে।

আলোর পাশেই অন্ধকার, আমরা দেখি আজ,
বঙ্গ মায়ের একি রূপ, একি তাঁর সাজ।
মায়ের এই  দৈন্যদশা, মলীনতার বেশ,
আলোর মাঝে রেখে যায় বৈপরিত্যের রেশ।

মন্ডপের  রোশনাই,  মিথ্যা আলোক মালা,
পুজোর নামে প্রতিবারের অপচয়ের খেলা।
দেখি অন্ধকারে  আজ,  সন্তান তাঁর অর্ধনগ্ন,
শীর্ন দেহে জীর্ন বস্ত্র,  জোটে না পেটের অন্ন।

মোদের এই আনন্দ উৎসব স্বার্থক হবে তখনি,
অবহেলিতদের কাছে টেনে নিতে পারব যখনি।
আর অভুক্তদের যদি পারি একটু অন্ন জোটাতে,
যদি পারি ওই শিশুদের মুখে হাসি ফোটাতে।

শেষকরি  মাগো তোমার কাছে  একটি  নিবেদনে,
এই ধরাতল ভরে গেছে ছদ্মবেশী অসুরগনে।
আজকের  এই অশুভ শক্তিকে করো মা খানখান,
অশুভের উপর শুভের জয় – এই হোক জয়গান।

(উপরোক্ত কবিতাটি স্যুইজারল্যান্ডের এক পুজো স্যুভেনিয়রে  প্রথম  ছাপা  হয়েছে।)
Composed by Anil  on 7th Sep 2010
Copyright by Anil 2010-11

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন