পৃষ্ঠাসমূহ / Pages

মাতৃভুমি এক্সপ্রেস

মমতা রয়েছেন মমতাতেই। গতকাল তিনি বারুইপুর থেকে শিয়ালদহ  পর্য্যন্ত মহিলা স্পেশাল ট্রেন উদ্বোধন করেন। এটা একটা শহরতলির লোকাল ট্রেন, শুধু মহিলাদের জন্য ছাড়া এটার আর কোন বিশেষত্ব নেই । কিন্তু মাননীয়া রেলমন্ত্রী এই স্বল্প দুরত্বের সাধারন একটি লোকাল ট্রেনের নামকরন করেছেন "মাতৃভুমি এক্সপ্রেস"। বোঝাই যাচ্ছে তিনি নামকরন করতে খুব ভালবাসেন। কোন যুক্তি বা কোন নিয়মের তোয়াক্কা না করেই সে তাঁর ইচ্ছামত একটা গালভরা নাম দিয়ে বসেন। তা না হলে কেও কি একটা LOCAL TRAIN'র নাম করন করেন এইভাবে? রেলের ইতিহাসে আছে কিনা সন্দেহ। অত্যন্ত্য হাস্যকর ব্যাপার।

বারুইপুর লোকাল হয়ে গেল মাতৃভুমি এক্সপ্রেস। এটা এক্সপ্রেস ট্রেন নয় তবুও তাঁর  আর্বাচীনতার জন্য হয়ে গেল এক্সপ্রেস ট্রেন। দ্বিতীয়তঃ মাতৃভুমি নামকরন। তর্কের খাতিরে ধরে নিলাম মহিলা ট্রেন বলে বা তাঁর দলের মা মাটি মানুষের "মা" থেকে "মাতৃ" এসেছে কিন্তু "ভুমি" কথাটার এখানে প্রয়োগ কেন? এর মানে দাঁড়াচ্ছে এই ট্রেনের যাত্রীগনের  মাতৃভুমি  হচ্ছে বারুইপুর, সেখান থেকে সকালে  "কলকাতা " নামক এক প্রদেশে   আসেন এবং সন্ধ্যায় আবার তাদের মাতৃভুমিতে ফিরে যান কিম্বা এর উল্টোটাও হতে পারে। 

এটা দুরপাল্লার ট্রেন হলে নামটা তবুও যুক্তিসঙ্গত হত। কিন্তু লোকাল ট্রেনের নাম "মাতৃভুমি" দেওয়া অতি বুদ্ধিহীনতার পরিচয়। এর আগে বারাসাত-শিয়ালদহ লোকালের নামও মাতৃভুমি এক্সপ্রেস নামকরন করেছেন। সমালোচনায় তিনি টলবার পাত্রী নন। তিনি নিজে যা ঠিক মনে করেন তাই করেন। তাঁর কাছে অন্যের মতামতের কোন দাম নেই। তাই তিনি এবার দক্ষিন শহরতলীর একটি LOCAL ট্রেনের নাম দিলেন  "মাতৃভুমি এক্সপ্রেস"। দিতেই পারেন - তিনি ভারতের রেলমন্ত্রী যে।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন